কঙ্গনার ‘পদ্মশ্রী’ সম্মান কেড়ে নেয়া হোক! প্রধানমন্ত্রী ভুল করেছেন, মুখ খুললেন রাখি সাওয়ান্ত

কিছুদিন আগে ইন্সটাগ্রামে রাখি সাওয়ান্ত একটি ভিডিও শেয়ার করেছিলেন যেখানে তিনি কঙ্গনা রাণাওয়াত (Kangana Ranaut)-এর কন্ঠস্বরের পরিবর্তে এডিটিং করে সারমেয়র ‘ভৌ ভৌ’ কন্ঠস্বর জুড়ে দিয়েছিলেন। ভিডিওটি শেয়ার করে কঙ্গনাকে তিনি দেশদ্রোহী বলেছিলেন। এরপর দিল্লির মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সনের তরফে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (Ramnath Kovind)-কে কঙ্গনার ‘পদ্মশ্রী’ সম্মান নিয়ে নেওয়ার অনুরোধ করা হয়।

কঙ্গনা বলেছিলেন, 1947 সালে যা পাওয়া গিয়েছিল তা ভিক্ষা, কিন্তু 2014 সাল থেকে ভারতবর্ষ প্রকৃত অর্থে স্বাধীন। কঙ্গনার এই বিতর্কিত মন্তব্যের পর অনেকেই মনে করছেন কঙ্গনা বিজেপির প্রতি পক্ষপাতিত্ব করছেন। এবার রাখির আরও একটি ভিডিও নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট ভিডিওতে তিনি কঙ্গনাকে রীতিমত গালাগালি দিয়ে বলেছেন তাঁর ‘পদ্মশ্রী’ ফেরৎ নিয়ে নিতে। তাঁর চারপাশে উপস্থিত জনতাও তাঁর কথায় সায় দিয়েছেন। রাখি বলেছেন, ভারতবাসী ভিক্ষা করে স্বাধীনতা পাননি। তাঁরা ইংরেজদের মেরে ভারত থেকে তাড়িয়ে দিয়েছেন। কঙ্গনা ঝাঁসির রানী লক্ষ্মীবাঈ-এর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। রানী লক্ষ্মীবাঈও লড়েছিলেন ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির বিরুদ্ধে।

রাখির মতে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) ভুল করেছেন, কঙ্গনাকে পদ্মশ্রী দিয়ে। এই সম্মান শাহরুখ খান(Shahrukh Khan), সলমান খান (Salman Khan), অক্ষয়কুমার (Akshay Kumar)-দের প্রাপ্য। তাঁরা দেশের জন্য কাজ করেছেন, দেশকে জাগ্রত করার বার্তা দিয়ে ফিল্ম বানিয়েছেন। টাইগার শ্রফ (Tiger Shroff), অজয় দেবগণ (Ajay Devgan)-কেও পদ্মশ্রী দেওয়া যেত। কিন্তু কঙ্গনা দেশের নুন খেয়ে দেশকে গালি দিচ্ছেন। এমনকি রাখি কঙ্গনার পদ্মশ্রী পাওয়ার পিছনে অশ্লীল ইঙ্গিত করেছেন। কঙ্গনাকেই ‘পদ্মশ্রী’ ভিক্ষা দেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন রাখি। স্বাধীনতা সংগ্রামীরা, ভারতীয় সেনাবাহিনী, রাজনৈতিক নেতারা স্বাধীন করেছেন ও স্বাধীন রেখেছেন। ‘বাপু’ মহাত্মা গান্ধী (Mahatma Gandhi) দেশের স্বাধীনতায় জীবন উৎসর্গ করেছেন। বাবা সাহেব অম্বেদকর (Babasaheb Ambedkar) সংবিধান রচনা করেছেন। শান্তিপূর্ণ ভাবে ভারতীয়রা ইংরেজদের ভারতছাড়া করেছেন। বিপ্লবীরা স্বাধীনতার জন্য অনশন করেছেন, লড়াই করেছেন। এমনকি রাখি পথচারীদের ডেকে জিজ্ঞাসা করেন, সত্যিই কি ভারত ভিক্ষা করে স্বাধীনতা পেয়েছে! সকলেই রাখির সমর্থনে কথা বলেছেন।

রাখি এক ব্যক্তির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়ে বলেন, ওই ব্যক্তির ভাই ভারতীয় সেনাবাহিনীতে কাজ করেন। ভারতীয় সেনা বর্ডার পাহারা দিচ্ছেন বলেই সকলে শান্তিতে ঘুমাতে পারছেন বলে মনে করেন রাখি। ওই ব্যক্তিও একই কথা বলেন। রাখি বলেন, কঙ্গনা ইংরাজি ভাষাটিও ভিক্ষা করেই পেয়েছেন।